সাজেক: ৩ রাত / ২ দিন

Bangladesh

সাজেক: ৩ রাত / ২ দিন

৳ 6000 per person

আমরা বিভিন্ন দেশের গ্রীন ভ্যালী দেখতে যাই বা দেখার স্বপ্ন দেখি কিন্তু আমাদের দেশেও আছে তেমনই এক অপরূপা গ্রীন ভ্যালী, যার নাম সাজেক। এ যেন রাঙামাটির ছাদ! নয়নাভিরাম অরণ্য ভূমি আর পাহাড়ের বন্ধনে যেখানে মেঘের দল প্রেমে মেতে থাকে। অসাধারণ সুন্দর আর পৃথিবীর মোষ্ট ফটোজেনিক প্লেস সাজেক ভ্যালি!

চারিদিকে সারি সারি পাহাড় আর মাঝে মাঝে সাদা তুলোর মত মেঘমালা। যেন সবুজের রাজ্যে সাদা মেঘের হ্রদের পাড়ে দাড়িয়ে আছেন আপনি। নিশ্চয়ই ভাবছেন স্বপ্নের মত সুন্দর এরকম দৃশ্য বাস্তবে আদৌ কি দেখা যাবে? আর দেখা গেলেও হয়ত যেতে হবে বহুদূরে কোন অজানা দেশে। কিন্তু অবাক করা ব্যাপার হল আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশেই রয়েছে এরকম এক মেঘপুরী যার নাম সাজেক ভ্যালী।

সাজেক বাংলাদেশের দক্ষিণ পূর্বে অবস্থিত রাঙ্গামাটি জেলায় অবস্থিত। সাজেক থেকে ভারতের মিজোরাম মাত্র আট কিলোমিটার দূরে। সাজেকের চারপাশের উঁচু উঁচু পাহাড়গুলো পড়েছে ভারত ও বাংলাদেশ উভয় দেশেই। তবে ঢাকা থেকে সাজেক যেতে হলে আপনাকে প্রথমে যেতে হবে ঢাকা থেকে ২৬১ কিলোমিটার দূরে খাগড়াছড়ি শহরে।

 

  • Destination
  • Departure
    ঢাকা. বাংলাদেশ
  • Departure Time
    ৭/৮ই জুন
  • Return Time
    ১০ই জুন ২০১৯
1
যাত্রা
রাতে ঢাকা থেকে খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে যাত্রা। বাস ছাড়বে কলাবাগান কাউন্টার থেকে। বাস ছাড়ার ৩০ মিনিট আগে উপস্থিত হতে হবো।
2
প্রথমদিন
সকালে খাগড়াছড়ি পৌঁছে নির্ধারিত রেস্টুরেন্টে ফ্রেশ হয়ে সকালের নাস্তা করে জিপে সাজেকের উদ্দেশ্যে রওনা হবো।দুপুরে সাজেকে পৌঁছে কটেজে চেকইন করে ফ্রেশ হয়ে দুপুরের খাবার খাবো।বিকালে ঘুরবো কংলাক পাহাড়ে, আরো ঘুরবো লুসাই হেরিটেজ পার্ক, হেলিপ্যাড রক গার্ডেন। বিকেলে ফানুস উড়াবো (আবহাওয়ার উপর নির্ভরশীল) রাত খেয়ে সবাই ঘুমাতে যাবো।রাতে সাজেকে থাকবো।
3
দ্বিতীয় দিন
সাজেকের সৌন্দর্য ভোর বেলায়, ভোরে রুমের বারান্দা থেকে মেঘ উপভোগ করবো। সকাল সাড়ে ১০টায় সাজেক ত্যাগ করবো। খাগড়াছড়ি যাবার পথে হাজাছড়া ঝর্ণা দেখা। খাগড়াছড়ির রেস্টুরেন্টে দুপুরের খাবার। খাবার শেষে আলুটিলা গুহা এবং তারেং যাবো। খাগড়াছড়ি শহরের মার্কেট (শপিং করতে চাইলে, সন্ধ্যায়)। রাতের খাবার পর্ব শেষ করে, রাত ৯ টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা। পরের দিন ভোর ৫টায় ঢাকা পৌছে যাবো।
0.0
Accomodation0%
Destination0%
Meals0%
Overall0%
Satisfaction0%
Transport0%
Value For Money0%

POST A REVIEW

এই টাকার ভিতরে থাকছে

  • আমাদের বার-বি-কিউ ডিনার এবং নরমালি ডিনার ২টোই থাকবে। যে কেহ যে কোন একটি বেছে নিতে পারবে। তবে বুকিং করার সময় কনফার্ম করে নিতে হবে।.
  • ঢাকা টু খাগড়াছড়ি নন এসি বাস টিকিট।
  • খাগড়াছড়ি টু ঢাকা বাস টিকিট।
  • ২টি করে সকাল, দুপুর, রাতের খাবার।
  • দুই দিনের জন্য রিজার্ভ জিপ
  • রিসোর্ট/কটেজে রাত্রি যাপনের ব্যবস্থা।
  • সকল এন্ট্রি টিকিট।
  • অভিজ্ঞ গাইড।

প্যাকেজ প্রাইজ

  • রুমে জন এডাল্ট: জনপ্রতি ,০০০/-
  • রুমে জন এডাল্ট: জনপ্রতি ,৫০০/-
  • ১ রুমে ২ জন এডাল্ট: জনপ্রতি ৭,০০০/-
  • শিশু (১-৩ বছরের কম) ফ্রি।
  • শিশু (৩-৭ বছরের কম) ৩৯৯০/- (প্রাপ্ত বয়স্ক যা পায় সবই পাবে, বাবা মার সাথে বেড শেয়ার করবে) । ৭ বছরের উপর সবাইকে এডাল্ট হিশেবে গণ্য করা হবে।
  • নন এসি বাস প্যাকেজ প্রাইসে অন্তর্ভুক্ত।এসি বাসে আপডেট (আসা যাওয়া) ১০০০/- যোগ হবে।
  • সেইন্ট মার্টিন হুন্দাই এসি বাসে আপডেট ১৪০০/- যোগ হবে। 

বুকিং পলিসি

  • বুকিংয়ের শেষ সময়ঃ ১৮ই মে ২০১৯ ইং।
  • বুকিং কনফার্ম করতে জনপ্রতি নু্ন্যতম ৫০% টাকা জমা দিতে হবে ।
  • অফিসে এসে পেমেন্ট করতে পারেন।
  • বিকাশ পেমেন্ট করতে পারেন।
  • ব্যাংক একাউন্ট পেমেন্ট করতে পারেন
  • শর্ত প্রযোজ্য

সতর্কতা

  • খাবারের অবশিষ্ট বা উচ্ছিষ্ট অংশ, চিপসের প্যাকেট, সিগারেটের ফিল্টার, পানির বোতলসহ অন্যান্য আবর্জনা পার্কের ভিতরে ট্যুর বা ভ্রমণ স্থানে অথবা যেখানে সেখানে না ফেলে নিদিষ্ট স্থানে বা ব্যাকপ্যাকে করে সাথে নিয়ে আসুন।
  • মনে রাখবেন, প্রকৃতির এই সৌন্দর্যকে টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদেরই।