হাওড় বিলাস: ২ দিন & ৩ রাত

Bangladesh

হাওড় বিলাস: ২ দিন & ৩ রাত

৳ 5899 per person

টাঙ্গুয়ার হাওর সুনামগঞ্জ জেলার প্রায় ১০০ বর্গকিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মিঠাপানির জলাভূমি। অথৈ পানি, জলাবন, নীল আকাশ, পাহাড় ও চোখ জুড়ানো সবুজ এই হাওরকে অপরুপ সাজে সাজিয়েছে।

হাছন রাজার ভিটে,টাঙ্গুয়ার হাওড়, সচ্ছ নীলাভ পানি আর হাওড়ের কোল ঘিরে মেঘালয়ের ছবির মতো সুন্দর পাহাড় এইতো আমাদের সুনামগঞ্জ জেলা। মাঝ রাতে চাঁদের আলোয় নিজেকে হারিয়ে ফেলা , পূর্ণিমার আলো হাওড়ের নীল পানিতে আছড়ে পড়া, সুনসান নীরবতা চারিদিক। মাঝে মধ্যে পাখিরা ঘুমের ঘোরে ডেকে উঠছে মৃদু স্বরে, দূরের মেঘালয়ের পাহাড়গুলো চাঁদের রূপালি আলোয় স্পষ্টতই প্রতীয়মান। এমন একটি দৃশ্য আর সময় উপভোগ করার জন্য টাঙ্গুয়ার হাওর বাংলাদেশের অন্যতম একটি জায়গা।

টাঙ্গুয়ার হাওড় থেকে ভারতের মেঘালয়ের পাহারগুলো দেখা যায়। মেঘালয় থেকে প্রায় ৩০টি ছোট বড় ঝর্ণা বা ছড়া টাঙ্গুয়ার হাওরে এসে মিশেছে। এই হাওরে একটি ওয়াচ টাওয়ার রয়েছে, এর আশেপাশের পানি খুবই স্বচ্ছ হওয়ায় উপর থেকে হাওরের তলা দেখা যায়। টাঙ্গুয়ার হাওরে ছোট বড় প্রায় ৪৬ টি দ্বীপের মত ভাসমান গ্রাম বা দ্বীপ গ্রাম আছে। বাংলাদেশ সরকার ১৯৯৯ সালে টাঙ্গুয়ার হাওরকে Ecologically Critical Area (ECA) হিসেবে ঘোষণা করে। আর ২০০০ সালে টাঙ্গুয়ার হাওর রামসার সাইট (Ramsar site) এর তালিকায় স্থান করে নেয়।

  • Destination
  • Departure
    Dhaka, Bangladesh
1
১ম দিন
সুনামগঞ্জ নেমে লেগুনায় করে তাহিরপুর বাজার যাবো। তারপর ফ্রেশ হয়ে নাশতা করে একেবারে নৌকায় উঠে শুরু হয়ে যাবে হাওড়বিলাস অভিযান ।ট্রলার ছেড়ে চলে যাবো জাদুকাটা নদী, সেখানে নীল পানিতে লাফালাফি করে দেখতে যাবো বারিক্কা টিলা। বারিক্কা টিলা ঘুরে আসার সময় বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিমুল বাগান ঘুরে আসবো। শিমুল বাগান ঘুরে ফিরে আসবো ওয়াচ টাওয়ার এর দিকে এবং আসেপাশে সেখানেই নৌকায় রাত্রি যাপন ও রাতের খাবার অতঃপর পূর্ণিমার জোছনা বিলাস ।
2
২য় দিন
সকালে নাস্তা করে ওয়াচ টাওয়ার এবং আশে পাশের এলাকা ঘুরে চলে যাবো দেখতে টেকের ঘাট। সেখানে লাইমস্টোন লেক (নীলাদ্রি লেক) এ গোসল করে লাকমাছড়া ঘুরে ফিরবো তাহিরপুর বাজারের উদ্দেশ্যে।সেখান থেকে লেগুনায় সুনামগঞ্জ, তারপর রাতের খাবার খেয়ে রাতের বাসে করে ঢাকার উদ্দ্যেশে ফেরা।
0.0
Accomodation0%
Destination0%
Meals0%
Overall0%
Satisfaction0%
Transport0%
Value For Money0%

POST A REVIEW

প্যাকেজে যা যা অন্তর্ভুক্ত

  •  ঢাকা – সুনামগঞ্জ – ঢাকা (নন এসি বাস)
  • নৌকা ভ্রমণ ও রাতে নৌকায় থাকা অথবা হোটেলে রাত্রিযাপন
  • স্পটগুলো ভ্রমণ বা পরিদর্শণ
  • সকালের নাশতা, দুপুর ও রাতের খাবার

প্যাকেজে যা যা অন্তর্ভুক্ত নয়

  • কোন ব্যক্তিগত খরচ।
  • কোন ঔষধ।
  • কোন ধরণের বীমা।
  • লঞ্চের ভিতরে হালকা ও রাতের খাবার।
  • ব্যক্তিগত খরচ যেমন লন্ড্রি, টেলিফোন কল, মিনারেল ওয়াটার।

যা যা ঘুরবো

  • সুনামগঞ্জ
  • তাহিরপুর
  • যাদুকাটা নদী
  • বারিক্কা টিলা
  • শিমুল বাগান
  • টেকেরঘাট
  • নীলাদ্রি লেক
  • টাঙ্গুয়ার হাওড়
  • লাকমাছড়া

প্রযোজ্য বিষয়সমূহ

  • প্রথমেই একটি ভ্রমণ পিপাসু মন থাকতে হবে।
  • ভ্রমণকালীন যে কোন সমস্যা নিজেরা আলোচনা করে সমাধান করতে হবে।
  • ভ্রমণ সুন্দর মত পরিচালনা করার জন্য সবাই আমাদেরকে সর্বাত্মক সহায়তা করতে হবে।
  • অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে যে কোন সময় সিদ্ধান্ত বদলাতে পারে ।
  • যে কোন শর্তাবলী প্রযোজ্য ।

যা যা নিয়ে আসবেন

রেইনকোট/ছাতা, হাঁটার স্লিপার জুতা, সূর্য থেকে সুরক্ষার জন্য হ্যাট / ক্যাপ, সান -বাম লোশন, রোদ চশমা, ক্যামেরা , জরুরী ঔষধ,পতঙ্গনাশক ক্রীম, পানির বোতল, গামছা ইত্যাদি।

Prices

  • ফ্যামিলি বা ক্যাপল প্যাকেজ: ৬৫০০ টাকা জনপ্রতি ।
  • গ্রুপ বা স্টুডেন্ট প্যাকেজ: (০৮-১০)জন – ৫৮৯৯  টাকা জনপ্রতি।

নিবন্ধন

শুক্রবার ছাড়া যে কোন দিন অফিস সময়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।

সতর্কতা

খাবারের অবশিষ্ট বা উচ্ছিষ্ট অংশ, চিপসের প্যাকেট, সিগারেটের ফিল্টার, পানির বোতলসহ অন্যান্য আবর্জনা পার্কের ভিতরে ট্যুর বা ভ্রমণ স্থানে অথবা যেখানে সেখানে না ফেলে নিদিষ্ট স্থানে বা ব্যাকপ্যাকে করে সাথে নিয়ে আসুন। মনে রাখবেন, প্রকৃতির এই সৌন্দর্যকে টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদেরই।